অনুগ্রহ করে অপেক্ষা করুন...

al-ihsan.net
বাংলা | English

দেশের খবর - ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১২
 
‘ইনোসেন্স অব মুসলিমস’ নির্মাণকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেনা সন্ত্রাসবাদী আমেরিকা
আল ইহসান ডেস্ক:

সারা বিশ্বের মুসলিমদের ধর্মীয় চেতনায় চরমভাবে আঘাত করার পরও ইসলাম বিদ্বেষী সন্ত্রাসবাদী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ‘ইনোসেন্স অব মুসলিমস’ চলচ্চিত্রের নির্মাতা বা কলাকুশলীদের বিরুদ্ধে কোনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে পারবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে সন্ত্রাসবাদী মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন। চলচ্চিত্রটির প্রতিক্রিয়া নিয়ে নাটকীয় দুঃখ প্রকাশ করলেও যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা সংরক্ষিত থাকায় কোনো পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব নয় বলে মন্তব্য করেছে সে।
হিলারি বলেছে, আমি জানি, অনেকের জন্য এটি মেনে নেওয়া কষ্টকর যে, এ ধরনের ভিডিও জনসম্মুখে প্রকাশের আগেই কেন যুক্তরাষ্ট্র সরকার এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয় না। বর্তমান প্রযুক্তির যুগে এমনটা করা একেবারেই সম্ভব নয়। আর ঐতিহ্যগতভাবে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা আমাদের দেশের সংবিধান ও আইনে গভীরভাবে সংরক্ষিত আছে।
সে বলেছে, অনেকের চিন্তা-চেতনায় যতই আঘাত করুক না কেন, আমরা কোনো নাগরিককে স্বাধীন মতপ্রকাশের অধিকার থেকে বঞ্চিত করতে পারি না। এ বিষয়ে কোনো শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগও।
চলচ্চিত্রটির পরিচালক সম্পর্কে সুনির্দিষ্টভাবে কিছু জানা না গেলেও ক্যালিফোর্নিয়ার ৫৫ বছর বয়সী নাগরিক স্যাম বাসিল নিজেকে এর পরিচালক বলে দাবি করেছে। এ ছাড়া অন্য দুজন মার্কিন নাগরিক নিজেদের ওয়েবসাইটে এর প্রচারণা চালিয়েছিলো। তাদের একজন হলো খ্রিষ্টীয় চরমপন্থী যাজক টেরি জোনস এবং অন্যজন ওয়াশিংটনের আইনজীবী মরিস সাদেক। একদল নতুন কলাকুশলীর সহায়তায় খুবই কাঁচা ও অদক্ষ হাতে নির্মাণ করা হয়েছে ‘ইনোসেন্স অব মুসলিমস’ নামের চক্রান্তমূলক বিতর্কিত চলচ্চিত্রটি।
বাসিলের নির্মিত এ চলচ্চিত্রের প্রতিবাদে লিবিয়ার বেনগাজিতে বিক্ষোভের শিকার হয়ে মারা গেছে সেখানে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতসহ চারজন। মুসলিম বিশ্বের অন্যত্রও প্রতিবাদের ঝড় উঠেছে। এর তীব্র প্রতিবাদ করতে গিয়ে গতকাল সারা বিশ্বে ৬ জন মুসলিম শহীদ হয়েছেন বলেও রয়টার্সের সূত্রে খবর পাওয়া গেছে।







For the satisfaction of Mamduh Hazrat Murshid Qeebla Mudda Jilluhul Aali
Site designed & developed by Muhammad Shohel Iqbal